মো. আখলাকুজ্জামান (বিশেষ প্রতিবেদক): তৎকালীন এরশাদ সরকার আমলে নাটোরের গুরুদাসপুর পৌর সদরের বিলচলন শহীদ সামসুজ্জোহা কলেজের সামনে অবস্থিত হ্যালিপ্যাডটি সঠিক রক্ষনাবেক্ষণ ও অযন্ত অবহেলায় মাটি খেকোদের কারণে বিলীন হতে চলেছে। এমনকি সেই হ্যালিপ্যাডের জায়গাটি এখন ট্রাক স্ট্যান্ড হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে। তবুও দেখার কেউ নেই।

সরেজমিনে এলাকাবাসী জানান, ১৯৮৮ সালের বন্যার পর তৎকালীন সরকার ক্ষতিগ্রস্থদের খোঁজখবর ও সহযোগিতা করার লক্ষ্যে হ্যালিকপ্টার নামানোর সেই হ্যালিপ্যাড তৈরি করেছিলেন। সম্প্রতি উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার উদ্যোগে হ্যালিপ্যাডটিতে উপজেলা স্টেডিয়ামের জন্য নির্ধারিত স্থান হিসেবে সাইনবোর্ড টাঙানো হয়েছে। তবুও হ্যালিপ্যাডের মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন শ্রেণির অসাধু লোকজন। এদিকে নিয়ন্ত্রণহীন হওয়ায় ও দেখভালের অভাবে হ্যালিপ্যাডের ওপরই ট্রাক স্ট্যান্ড করা হয়েছে। যার ফলে সেখানে এখন নিয়মিত মাদক সেবনও চলে। একদিকে হ্যালিপ্যাডের মাটি খেকোর দল অন্যদিকে ট্রাক স্ট্যান্ডের কারণে বিলীন হচ্ছে মাটি এবং সেই সাথে হ্যালিপ্যাডটি উপজেলা স্টেডিয়ামের পরিচয়টিও হারিয়ে ফেলছে। তাই সেখানে একটি শিশু পার্ক বা বিনোদন কেন্দ্র স্থাপনের দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

এ ব্যাপারে স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর শেখ সবুজ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে হ্যালিপ্যাডটির এই দুর্দশা দেখে আসছি। সঠিক রক্ষানাবেক্ষণের অভাবে জায়গাটি প্রায় বিলীন হওয়ার পথে। এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে হ্যালিপ্যাডের জায়গাটি উদ্ধার করতে উপজেলা প্রশাসন ও পৌর কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তমাল হোসেন বলেন, জায়গাটি যেহেতু সরকারি তাই এসিল্যান্ডকে এ বিষয়ে প্রতিবেদন তৈরির জন্য বলা হয়েছে। সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আবু রাসেল বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।