শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নাটোরে ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে ইন্টারন্যাশনাল হিউমান রাইটস অ্যান্ড ডিটেকটিভ নিউজ সোসাইটির পাঁচ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। ছবি: সংগৃহীত

নিউজ ডেস্ক: নাটোরে ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে ইন্টারন্যাশনাল হিউমান রাইটস অ্যান্ড ডিটেকটিভ নিউজ সোসাইটির পাঁচ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তদন্ত আব্দুল মতিন।

শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নাটোর শহরের নিচাবাজার এলাকায় হাসপাতাল রোডের মেমোরি ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন, খুলনার কোতোয়ালি থানার সিয়াপাড়ার আব্দুস সালামের ছেলে সিরাজুল ইসলাম, খানজাহান থানার কুয়েটের ফুলবাড়ী গেট এলাকার হাসিব উদ্দিনের ছেলে আতিকুর রহমান, মুন্সিগঞ্জ সদর থানার গণকপাড়ার হযরত আলীর ছেলে মনিরুজ্জামান, ঢাকার পূর্ব রামপুরার আব্দুল হাই খানের ছেলে মাহবুব আলম খান এবং ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার রায়াপুরার আলমাস আলী খানের ছেলে আরিফুর রহমান নয়ন।

এ ব্যাপারে মেমোরি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক তৌকির রহমান তনু জানান, আজ (শনিবার) দুপুরের দিকে ইন্টারন্যাশনাল হিউমান রাইটস অ্যান্ড ডিটেকটিভ নিউজ সোসাইটির সদস্যরা নিজেদেরকে ম্যাজিস্ট্রেট ও সোসাইটির বিভিন্ন পরিচয় দিয়ে নাটোর শহরের নিচাবাজার এলাকায় তার মেমোরি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে চাঁদাবাজির চেষ্টা চালায়। এ সময় তাদের অসংলগ্ন আচরণ ও কথাবার্তায় সন্দেহ হলে তিনি ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে সহযোগিতা কামনা করেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

অপরদিকে নাটোরের লালপুরের গোপালপুর ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিক আব্দুল কুদ্দুস জানান, গতকাল শুক্রবার তার কাছে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট পরিচয় দিয়ে ১০ হাজার টাকা দিতে বাধ্য করেছেন আটক ব্যক্তিরা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তদন্ত আব্দুল মতিন জানান, আটককৃতরা নিজেদের আন্তর্জাতিক মানবাধিকার ও গোয়েন্দা সংবাদ সংস্থার লোক বলে পরিচয় দিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে মানুষের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেন। তাদের ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটিও জব্দ করা হয়েছে। আটকৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।