রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঘরবাড়ি ও ফসল রক্ষার্থে নাটোরের গুরুদাসপুরে তিন ফসলি কৃষি জমিতে পুকুর খনন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী। ছবি: মো. আখলাকুজ্জামান

মো. আখলাকুজ্জামান (বিশেষ প্রতিবেদক): ঘরবাড়ি ও ফসল রক্ষার্থে নাটোরের গুরুদাসপুরে তিন ফসলি কৃষি জমিতে পুকুর খনন বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন করেছেন এলাকাবাসী।

রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের মামুদপুর উত্তপাড়া মাঠে প্রায় ৩০০ নারী-পুরুষ এই মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধনে শিক্ষক রফিকুল ইসলাম, জাসমত আলী, হাবিল উদ্দিন, মকদম আলী, রাজ্জাক মোল্লা, লতিফ মোল্লা, গোলজার হোসেন, জয়নাল আলীসহ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এলাকাবাসী জানায়, বিগত দিনে কয়েকটি পুকুর খনন হওয়ায় মাঠের ৩০০ একর কৃষিজমিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। নতুন করে এলাকার কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি পুকুর খননের প্রস্তুতি নিয়েছে। পুকুরটি খনন হলে বর্ষায় মাঠ জুড়ে জলাবদ্ধতায় বাড়িঘর ডুবে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কৃষি জমিগুলোতে ফসল ফলানো সম্ভব হবে না। তাই পুকুর খনন বন্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়ে মানববন্ধন করেছেন তারা।

মানববন্ধনে রফিকুল ইসলাম মাস্টার বলেন, প্রায় ৩ হাজার কৃষকের সংসার চলে এই মাঠের ফসল উৎপাদন করে। এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তি আরাফাত সোনার, শাহিন আলমসহ কয়েকজন তাদের জমিগুলোতে পুকুর খননের প্রস্তুতি নিচ্ছে। তাদের মাঠে যেন কোনভাবেই পুকুর খনন করতে দেওয়া না হয় সেজন্য জরুরীভাবে প্রশাসনের কাছে হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

অভিযুক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে আরাফাত সোনার জানান, আমার জমিতে পুকুর খনন করা হচ্ছে না। এলাকাবাসী আমার নামে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।

তিন ফসলি কৃষি জমিতে কোনভাবেই পুকুর খনন করতে দেওয়া হবে না মন্তব্য করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তমাল হোসেন বলেছেন, কেউ পুকুর খননের প্রস্তুতি নিয়ে থাকলেও তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।